কীভাবে লম্বা হওয়া যায়। ২০ বছরের পর লম্বা হওয়ার উপায় । লম্বা হওয়ার যোগ ব্যায়াম

lomba hower tips,tara tari lomba hower tips,lomba hower baham,তারা তারি লম্বা হওয়ার উপায়, tunestatus.com  tune status news

লম্বা হওয়ার প্রাকৃতিক উপায়।

অনেকেরই হয় তো বা একটি গোপন ইচ্ছা থাকে, নিজের শারীরিক উচ্চতা যেন বেশি হয়। এই চাওয়া কারন অনেকটা পরিবেশে বা সমাজের কারণেই। তবে শারীরিক উচ্চতা নির্ভর করে বেশ কয়েকটি বিষয়ের ওপর। এর মধ্যে উল্লেখ যোগ্য কারণ হচ্ছে- জিনগত, খাদ্যাভাস, পুষ্টি ও পরিবেশ। আর একজন মানুষের উচ্চতা বাড়ে একটা নির্দিষ্ট সময় মধ্যে।

যদি ভোগোলিক গত দিক থেকে চিন্তা করি কিংবা অবস্থানগত দিক থেকে চিন্তা করি তাহলে আমাদের একেক জনের উচ্চতা ঠিক একেক রকম হয়। কেউ উচ্চতার দিক থেকে যেমন অধিক লম্বা হয়ে থাকেন। আবার কারো কারো উচ্চতা খুব কম হয়। কিন্তু উচ্চতা নিয়ে মানুষকে তার জীবনে অনেক ধরণের বিরম্বনা বা সমস্যা পড়তে হয় হয়।

আমাদের সমাজে লম্বা শারীরিক গঠনের কদর খুবই বেশি । আমরা সকলেই লম্বা ও সুগঠিত শরীর নিয়ে জন্ম নেন না। তাই প্রাকৃতিক উপায় কিভাবে লম্বা হওয়া যাই তা নিয়ে আজকের পোস্ট 

নিচে ৭টি সহজ টিপস:

১/ লম্বা হওয়ার সবথেকে কার্যকর উপায় হচ্ছে ইনজেকশন  দ্বারা মানবদেহে হরমোন বৃদ্ধি করা যেটা কিনা সম্পূর্ণ বেআইনি এবং সবথেকে ব্যয়বহুল। 

২/ দুধ পান করলে আপনাকে লম্বা হতে সাহায্য করবে কারন হচেছ ক্যালসিয়াম আপনার শরীরের হাঁড় এর বৃদ্ধি ঘটাতে সাহায্য করবে। আমেরিকায় গরুর খাবারের মধ্যে বিভিন্ন হরমোন ইনজেকশন দেওয়া হয় যার যার কারনে হরমোনের মাত্রা বৃদ্ধি হয় এবং সেই প্রকিয়াজাতকরণ দুধ হয় সাধারণ দুধ এর বিকল্প।

৩/ ব্যায়াম আমাদের শারীরিক ভাবে সুস্ত রাখে।নিয়মিত কিছু নির্দিষ্ট ব্যায়াম (ওজন উদ্ধরণ) হরমোন (HGH) বৃদ্ধি করে। এটি বৃদ্ধি সংক্রান্ত হরমোনের মাত্রা আরও উন্নত করার জন্য অনেক বেশি পরিচিত রয়েছে। লম্বা  হওয়ার ব্যায়াম “

৪/ তীব্র Sprinting ব্যায়াম মানব বৃদ্ধির হরমোনে একটি বিস্ফোরণ ঘটাতে পারে। এছাড়া মানুষের হরমোনকে আরও উন্নত করে। যে কোনও কঠিন শারীরিক ব্যায়াম আপনাকে আরো লম্বা হতে সাহায্য করবে। তবে অবশ্যই সেটা ২১বছর বয়স হওয়ার পর উচিত।

৫/ Niacin Supplementation:  Niacin একটি প্রাকৃতিক ভিটামিন নামক ভিটামিন B3। গবেষণা থেকে জানা গেছে যে, ৫০০ গ্রাম নিয়াসিন নেওয়া মানুষের থেকে সাধারণ মানুষের বৃদ্ধি কম ঘটে। 

৬/ মানসিক চাপ বা চিন্তা করা কমান।স্ট্রেস বা মানসিক চাপ যা হচ্ছে আপনার লম্বা বৃদ্ধি হওয়ার ক্ষেত্রে একটি বড় বাঁধা। তাই মানসিক চাপ কমান। যাতে আপনার  হরমোনের মাত্রা কমে যায় এবং করটিসল উৎপাদিত হয় । ভিটামিন C সম্পূরকসমূহ যা করটিসল কমাতে জোর সহায়তা করে।

৭/ ঘুম। কমপক্ষে ৮ ঘণ্টা ঘুমানো এটি সবথেকে সহজ এবং অনেক কার্যকরী উপায় যা সঠিক এবং সুন্দর ভাবে ঘুমানো আপনার দেহের স্বাভাবিক বৃদ্ধি মাত্রা আরও বাড়িয়ে তোলে।

২০ বছরের পর লম্বা হওয়ার উপায় 

মনে রাখবেন উচ্চতা বাড়াতে প্রতিদিন অতন্ত ১ ঘন্টা ব্যায়াম করা উচিৎ, যেমনঃ সাঁতার কাটা, দড়ি লাফানো, সাইকেল চালানো, রিং টানা ইত্যাদি ব্যায়াম করতে পারেন। সামর্থ থাকলে জিমে যোগদান করা যেতে পারে।

লম্বা না হওয়ার কারন

আমাদের অনেকেই উচ্চতাকে সৌন্দর্য প্রকাশের প্রধান মাধ্যম হিসেবে বিবেচনা করে থাকে । আবার অনেকেরই উচ্চতা নিয়ে গর্ব বোধ করিহ। তাই উচ্চতা মানুষের চলার পথ বা অবস্থানের একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অংশ হয়ে উঠেছে। দ্রুত উচ্চতা বৃদ্ধির উপায় ও নিয়ম । তাহলে চলুন জেনে নেই ঠিক কি কি কারণে আমাদের উচ্চতা কম হওয়ার কারন গুলো কি কি-

১। বংশগত কারণ।

২। গ্রোথ হরমোনের কারণে।

৩। থাইরয়েড হরমোনের অভাব।

৪। সুষম খাদ্যের অভাব।

৫। কিডনি রোগের অনুপস্থিতিতে।  

৬। ভিটামিন ডি এবং সি এর অভাব।

৭। দীর্ঘস্থায়ী ফুসফুসের রোগের কারণে।

৮। সঠিক পরিপাকক্রিয়ার অভাব। 

সাধারনত এই ধরনের কারনেই অনেকে লম্বা হতে পারেন নাহ।তাই এ সমস্যা সমাধান করলে অনেক টা সুফল আশা করা যায়।আশা করি পোষ্টা পড়ে আপনাদের উপকারে আসবে। আর কারো কোনো কিছু জানার থাকলে কমেন্ট করতে পারেন । 

tag/lomba hower tips,tara tari lomba hower tips,lomba hower baham,তারা তারি লম্বা হওয়ার উপায়, tunestatus.com  tune status news

Next Post
No Comment
Add Comment
comment url