বিটিআরসি মোবাইল রেজিস্ট্রেশন। বিদেশ থেকে আনা মোবাইল নিবন্ধন।

বিটিআরসি মোবাইল রেজিস্ট্রেশন। বিদেশ থেকে আনা মোবাইল নিবন্ধন। www.tunestatus.com

বিদেশি মোবাইল রেজিস্ট্রেশন করার নিয়ম

বাংলাদেশে, বিদেশি ফোন দেশে আসার ১৫ দিনের মধ্যে বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশনের (বিটিআরসি) সাথে সেই মোবাইল ফোন নিবন্ধন করতে হবে। নিবন্ধন প্রক্রিয়া অনলাইনে বা বিটিআরসি অফিসে সম্পন্ন করা যেতে পারে। 

যেসব বিদেশি মোবাইল ফোন রেজিস্ট্রেশন করা যায় নি। সেগুলো বাংলাদেশে ব্যবহার করতে পারবে না। উপরন্তু, অনিবন্ধিত মোবাইল ফোন কর্তৃপক্ষ বাজেয়াপ্ত করতে পারে।

বিদেশ থেকে আনা মোবাইল নিবন্ধন

আপনি আপনার ফোন নিবন্ধন করার জন্য প্রথমে আপনাকে একটি  পিসি বা মোবাইল থেকে যেকোন একটি ব্রাউজার ওপেন করবেন। তারপর  neir.btrc.gov.bd এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করবেন।

ওয়েবসাইটে কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ও নির্দেশিকা দেওয়া রয়েছে সেগুলো  আপনাকে ভালভাবে পড়ে নিতে হবে।

প্রথমেই আপনাকে নিবন্ধন অংশে যেতে হবে। এরপর আপনার ফ্রাস্ট নাম, লাস্ট নাম, ইমেইল ও মোবাইল নাম্বার দিয়ে ওয়েবসাইটে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে।

ইমেইল বা মোবাইল নাম্বার এ একটি ওটিপ পাসওয়ার্ড আসবে। সেটি দিয়ে সেটআপ করুন।

এরপর আপনি পোর্টালের Special Registration সেকশনে গিয়ে আপনার মোবাইল হ্যান্ডসেটির IMEI নম্বরটি দিন।

মোবাইল রেজিস্ট্রেশন করা জন্য আপনাকে বিটিআরসি এর ওয়েবসাইটে লগইন করে বিশেষ নিবন্ধন অপশনে গিয়ে আইএমইআই নাম্বার ও ডকুমেন্ট দিতে হবে। আপনার ডকুমেন্ট যদি বৈধ হয় তাহলে আপনার বিদেশ থেকে আনা মোবাইল রেজিস্ট্রেশন হয়ে যাবে।

প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টসের ছবি/স্ক্যান কপি (যেমন পাসপোর্টের ভিসা/ইমিগ্রেশনের তথ্য, ক্রয় রসিদ ইত্যাদি) আপলোড করে Submit করতে হবে।

হ্যান্ডসেটটি বৈধ হলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে নিবন্ধিত হবে। বৈধ না হলে এসএমএস-এর মাধ্যমে গ্রাহককে জানিয়ে পরীক্ষাকালীন সময়ের জন্য নেটওয়ার্কে যুক্ত রাখা হবে।

আরো পড়ুন : দ্রুত ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করার উপায়।

মোবাইল রেজিস্ট্রেশন চেক

1) প্রথমে মোবাইল হ্যান্ডসেট থেকে *১৬১৬১# নম্বরে ডায়াল করুন। তারপর মোবাইল দেখানো অপশন থেকে Status Check অপশন ক্লিক করুন।

2) আইএমইআই যাচাই এর জনার জন্য আপনি আগেই মোবাইলে *#০৬# ডায়াল করবেন।তাহলে IMEI নাম্বার দেখতে পাবেন।

3) এরপর একটি বক্স আসলে সেখানে হ্যান্ডসেটের ১৫ ডিজিটের IMEI নম্বরটি লিখে সেন্ড করুন। হ্যাঁ/না অপশন একটি বক্স আসলে হ্যাঁ Select করে নিশ্চিত করুন।

4) ফিরতি মেসেজে ব্যবহৃত মোবাইল ফোনের হালনাগাদ অবস্থা জানানো হবে।

হ্যান্ডসেট নিবন্ধন করার নিয়ম

বিদেশ থেকে বৈধভাবে কিনে আনা বা উপহার পাওয়া হ্যান্ডসেট দেশে চালু করার পর স্বয়ংক্রিয়ভাবেই নেটওয়ার্ক অসচল হয়ে যাবে। তাই এ ধরনের গ্রাহকরা দশ দিনের মধ্যে অনলাইনে তথ্য বা দলিল প্রদান  করে নিবন্ধন করার জন্য এসএমএস পাঠানো হবে। দশ দিনের মধ্যে নিবন্ধন হয়ে গেলে ওই হ্যান্ডসেট ‘বৈধ’ হিসেবে বিবেচিত করা হবে। আর এটি না হলে হ্যান্ডসেটটি অবৈধ হিসেবে বিবেচনা করে  গ্রাহক কে একটি এসএমএস-এর মাধ্যমে জানানো হইবে।

বিদেশ থেকে আনা বা উপহার পাওয়া হ্যান্ডসেট নিবন্ধনের জন্য neir.btrc.gov.bd ওয়েবসাইটে গিয়ে গ্রাহককে অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে। তার পোর্টালের Special Registration সেকশনে গিয়ে মোবাইল হ্যান্ডসেটের আইএমইআই নম্বরটি দিতে হবে।

প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টসের ছবি/স্ক্যান কপি (যেমন পাসপোর্টের ভিসা/ইমিগ্রেশনের তথ্য, ক্রয় রসিদ ইত্যাদি) আপলোড করে Submit করতে হবে। হ্যান্ডসেটটি বৈধ হলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে নিবন্ধিত হবে। বৈধ না হলে এসএমএস-এর মাধ্যমে গ্রাহককে জানিয়ে দেওয়া হবে। 

আরো পড়ুন : কোন কোম্পানির মোবাইল সবচেয়ে ভালো সার্ভিস দেয়

অনলাইন মোবাইল রেজিস্ট্রেশন

দেশে গ্রাহকদের হাতে থাকা সচল কিন্তু অবৈধ ও নকল হ্যান্ডসেট নিবন্ধনের আওতায় আনতে চায় বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন(বিটিআরসি)। 


বর্তমানে বিটিআরসির ডাটাবেজ এ সবগুলো মোবাইল অপারেটর থেকে পাওয়া 
IMEI নম্বর এর মাইগ্রেশন কার্যক্রম চলছে ।এজন্য গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে বিদেশ থেকে কেনা বা উপহারকৃত মোবাইল হ্যান্ডসেট নিবন্ধন করার কথা জানিয়েছে বিটিআরসি। 

বিদেশে ভ্রমন মোবাইল রেজিস্ট্রেশন নিয়ম

আপনি যদি আপনার মোবাইল ডিভাইসের সাথে আন্তর্জাতিকভাবে ভ্রমণ করার পরিকল্পনা করেন, তাহলে স্থানীয় আইন মেনে চলার জন্য বিদেশী মোবাইল রেজিস্ট্রেশন নিয়মগুলি জানা গুরুত্বপূর্ণ। আপনি যে দেশে যাচ্ছেন তার উপর নির্ভর করে, আপনাকে আগে থেকেই সরকার বা আপনার পরিষেবা প্রদানকারীর সাথে আপনার ডিভাইস নিবন্ধন করতে হতে পারে।

আপনি যে দেশে যাচ্ছেন তার জন্য কোনো বিদেশী মোবাইল রেজিস্ট্রেশন নিয়ম আছে কিনা তা খুঁজে বের করতে, আপনার পরিষেবা প্রদানকারীর সাথে যোগাযোগ করুন বা ইউএস স্টেট ডিপার্টমেন্টের ওয়েবসাইটের মতো অনলাইন সংস্থানগুলি দেখুন৷

        All Bangla News  👉 Tune Status 👈

আপনি যদি আপনার মোবাইল ডিভাইসটি নিবন্ধন করতে চান, তাহলে আপনার ভ্রমণের আগে ভালভাবে করতে ভুলবেন না যাতে আপনি বিদেশে থাকাকালীন কোনো সমস্যায় না পড়েন।

আপনার মোবাইল ডিভাইস নিবন্ধন করার সময়, আপনাকে সম্ভবত আপনার নাম, ঠিকানা এবং যোগাযোগের তথ্যের মতো তথ্য প্রদান করতে হবে। আপনাকে আপনার ডিভাইসের মালিকানার প্রমাণ প্রদান করতে হতে পারে, যেমন আপনার ক্রয়ের রসিদ বা বীমা নীতির একটি অনুলিপি।

একবার আপনি আপনার ডিভাইসটি নিবন্ধিত করার পরে, ভ্রমণের সময় আপনার এটির উল্লেখ করার প্রয়োজন হলে আপনার সমস্ত ডকুমেন্টেশন একটি নিরাপদ স্থানে রাখুন৷

উপসংহার

উপসংহারে, বিদেশী মোবাইল রেজিস্ট্রেশনের নিয়মগুলি সম্পর্কে সচেতন হওয়া গুরুত্বপূর্ণ। এই প্রবিধানগুলি বোঝার মাধ্যমে, আপনি নিশ্চিত করতে পারেন যে আপনি বিদেশী মোবাইল কিনার পর বা উপহার পাওয়ার পর যেকোনো সম্ভাব্য জরিমানা এড়াতে পারবেন।

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url