সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস খরচ - সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস শাখা সমূহ

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস বাংলাদেশের অন্যতম প্রধান কুরিয়ার কোম্পানি। এটি তার শুরু থেকেই গ্রাহকদের নির্ভরযোগ্য এবং দক্ষ ডেলিভারি সেবা প্রদান করে আসছে। সারা দেশে ছড়িয়ে থাকা শাখাগুলির একটি নেটওয়ার্কের সাথে, সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস পার্সেল ডেলিভারি থেকে শুরু করে আন্তর্জাতিক কুরিয়ার পরিষেবা পর্যন্ত বিস্তৃত পরিষেবা প্রদান করে। 

এই ব্লগ পোস্টে, আমরা বাংলাদেশে সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস খরচ সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস শাখা সমূহ  এবং কীভাবে আপনার পার্সেলগুলিকে ট্র্যাক করতে হয় তা নিয়ে আলোচনা করব। আমরা একটি সফল ডেলিভারির জন্য কিছু টিপস এবং পরিষেবা সম্পর্কে কিছু প্রায়শই জিজ্ঞাসিত প্রশ্নও প্রদান করব৷ চলুন শুরু করা যাক!

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস খরচ - সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস শাখা সমূহ

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিসের পরিচিতি

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস বাংলাদেশের একটি নেতৃস্থানীয় কুরিয়ার সার্ভিস। এটি 1999 সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে গ্রাহকদের দক্ষ এবং নির্ভরযোগ্য কুরিয়ার পরিষেবা প্রদান করে আসছে৷ 

কোম্পানিটি স্থানীয় এবং আন্তর্জাতিক উভয় গন্তব্যে এক্সপ্রেস ডেলিভারি, আন্তর্জাতিক কুরিয়ার এবং কার্গো পরিষেবাগুলির মতো বিস্তৃত পরিসরের পরিষেবাগুলি অফার করে৷ সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিসের সারা বাংলাদেশে শাখার বিস্তৃত নেটওয়ার্ক রয়েছে, যা এটিকে দেশের অন্যতম জনপ্রিয় কুরিয়ার সার্ভিসে পরিণত করেছে।

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস খরচ

বাংলাদেশে সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস ব্যবহার করার খরচ নির্ভর করে আপনার প্রয়োজনীয় পরিষেবার ধরনের উপর। এক্সপ্রেস ডেলিভারি হল সবচেয়ে ব্যয়বহুল বিকল্প।

অনেকে ইন্টারনেটে অনুসন্ধান করে যে সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস এর সাহায্যে পণ্য আদান-প্রদান করতে কত টাকা খরচ হতে পারে। কুরিয়ার সার্ভিস খরচ সমূহ এখানে উল্লেখ করেছি যে। তাই আপনা থেকে আপনি জানতে পারবেন কোন জিনিস প্রেরণ করতে কত টাকা লাগে পারে।
যদি আপনি কোন প্রডাক্ট এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় পাঠাতে চান তাহলে নিচের খরচ তালিকাটি খেয়াল করুন। এখানে সকল তথ্য দেখানো হয়েছে।

  • প্রতি কেজি  ১০ টাকা হারে পার্সেলের ভাড়া নেওয়া হয়ে থাকে ।
  • দেশের ভিতরে ১৬ ঘণ্টার মধ্যে পৌঁছানো হয়ে থাকে
  • এই কোম্পানির মাধ্যমে নগদ টাকা পাঠানোর ব্যবস্থা রয়েছে। পাঠানো মূল টাকার ৫% কমিশন প্রদান করতে হয়।
  • এবং এখানে পণ্য প্যাকেজিং এর মাধ্যমে পণ্য পাঠানো হয়ে থাকে।
  • ছোট কার্টুন ৩০ টাকা এবং বড় কার্টুন ৮০ টাকা হারে প্রদান করতে হয়।
সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস দেশের বাইরেও মোট ১৫৫ টি দেশে পণ্য পৌঁছানোর ব্যবস্থা রয়েছে সুন্দরবন কুরিয়ার। আপনাদের সুবিধার্থে সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিসের কয়েক একটি পার্সেলের খরচ সমূহ নিম্নে দেওয়া হল:

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস খরচ লিস্ট

স্থান                   পণ্যর ধরন           ওজন         পণ্যর খরচ          পৌঁছানোর সময় 

ভারত                যেকোনো পণ্য          1 kg             500 টাকা            48 ঘন্টা
পাকিস্তান          যেকোনো পণ্য          1 kg           1800 টাকা           72 ঘন্টা
সৌদি আরব      যেকোনো পণ্য          1  kg          2000 টাকা           72 ঘন্টা
আমেরিকা        যেকোনো পণ্য          1  kg          2800 টাকা           72 ঘন্টা

কন্ডিশনে সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস খরচ

আগে ঢাকার ভিতরে 100 টাকা এবং ঢাকার বাহিরে 150 টাকা ছিল কিন্ত এখন ঢাকার ভিতর 150 টাকা ঢাকার বাহিরে 200 টাকা করে 

অতিরিক্ত চার্জ: কিছু কুরিয়ার পরিষেবা অতিরিক্ত প্যাকেজিং বা বীমা হিসাবে জিনিসগুলির জন্য অতিরিক্ত ফি গ্রহণ করে।

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস হেড অফিস

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিসের প্রধান কার্যালয় বাংলাদেশের ঢাকায় অবস্থিত। প্রধান কার্যালয়ের ঠিকানা হল:

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস :বাড়ি # 7, রোড # 19, গুলশান-1, ঢাকা, বাংলাদেশ।

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিসের হটলাইন নম্বর

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিসের একটি ডেডিকেটেড হটলাইন নম্বর রয়েছে যা গ্রাহকরা অনুসন্ধান এবং অভিযোগের জন্য কল করতে পারেন। 

হটলাইন নম্বর হল ০৯৬১২-০০৩ ০০৩  এটি 24/7 উপলব্ধ। 

গ্রাহকরা তাদের প্যাকেজ, অফার করা পরিষেবা এবং অর্থপ্রদানের বিকল্পগুলি সম্পর্কে তথ্য পেতে এই নম্বরে কল করতে পারেন।

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস কখন বন্ধ থাকে?

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস শুক্রবার সকাল ১১ টা থেকে বিকাল ৫ টা পযর্ন্ত ডেলিভারির জন্য খোলা থাকে। অন্যথায় শুক্রবার বাদে প্রতিদিন সকাল ৯ঃ৩০ থেকে সন্ধ্যা ৭ঃ৩০ পযন্ত সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস চালু থাকে

এছাড়া সুন্দরবন কুরিয়ারের একটি 24-ঘন্টা গ্রাহক পরিষেবা হটলাইনও নাম্বার রয়েছে , যা গ্রাহকরা যেকোনো প্রশ্ন বা সমস্যার জন্য কল করতে পারেন।

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস কত সময় লাগে 

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস মূলত ঢাকার ভিতরে 24 ঘন্টা এবং ঢাকার বাহিরে 48 ঘন্টার সময় নিয়ে থাকে, কিন্তু কুরিয়ার সার্ভিসের লক্ষ্য দুই দিনের মধ্যে ডেলিভারি করা।

তাছাড়া কোন প্রকার সমস্যা হয় তাহলে কিছুটা আগ পিছ হয়ে থাকে। আপনি ডেলিভারি যদি সময় মত না আসে তাহলে কুরিয়ার সার্ভিস হটলাইনে যোগাযোগ করতে পারেন।

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস পার্সেল ট্রাকিং

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস বড় প্যাকেজের জন্য ট্রাকিং পরিষেবাও অফার করে। বড় প্যাকেজ পরিবহনের জন্য এটি একটি সুবিধাজনক এবং সাশ্রয়ী উপায়। এই পরিষেবার খরচ প্যাকেজের ওজন এবং গন্তব্যের উপর নির্ভর কর

আরো পড়ুন: সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস ট্র্যাকিং করার নিয়ম

কোম্পানির ট্রাক এবং ড্রাইভারের একটি বহর রয়েছে যা প্যাকেজগুলি এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় পরিবহন করতে পারে। কোম্পানি প্যাকেজের জন্য বীমা প্রদান করে। গ্রাহকরা তাদের প্যাকেজগুলি রিয়েল-টাইমে ট্র্যাক করতে পারেন এবং তাদের প্যাকেজগুলি তাদের গন্তব্যে পৌঁছলে বিজ্ঞপ্তি পেতে পারেন৷

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস শাখা সমূহ 

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিসের সারা বাংলাদেশে শাখার বিস্তৃত নেটওয়ার্ক রয়েছে। দেশের বিভিন্ন শহর ও শহরে অবস্থিত কোম্পানিটির 200 টিরও বেশি শাখা রয়েছে। কয়েকটি প্রধান শাখার মধ্যে রয়েছে- 

ঢাকা, চট্টগ্রাম,সিলেট, খুলনা, রাজশাহী, রংপুর, বরিশাল, বগুড়া, দিনাজপুর, ময়মনসিংহ, টাঙ্গাইল মতো বাংলাদেশের 64 টা জেলাতেই তাদের কোম্পানির শাখা রয়েছে।

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস ঢাকা শাখা

ঢাকা বাংলাদেশের রাজধানী এবং সবচেয়ে বেশি সংখ্যক সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিসের শাখা রয়েছে। ঢাকা শাখার মধ্যে রয়েছে গুলশান, বনানী, উত্তরা, মিরপুর, ধানমন্ডি, মতিঝিল এবং পুরান ঢাকা। এই শাখাগুলি এক্সপ্রেস ডেলিভারি, আন্তর্জাতিক ডেলিভারি এবং মালবাহী ফরওয়ার্ডিং সহ বিভিন্ন পরিষেবা প্রদান করে। 

আরো পড়ুন:  সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস ঢাকার সকল শাখা

গ্রাহকরা ক্যাশ অন ডেলিভারি, অনলাইন পেমেন্ট এবং ব্যাঙ্ক ট্রান্সফারও বেছে নিতে পারেন।

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস সিলেট শাখা

সিলেট বাংলাদেশের একটি প্রধান শহর এবং এখানে বেশ কয়েকটি সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিসের শাখা রয়েছে। সিলেট শাখার মধ্যে রয়েছে সিলেট শহর, জাফলং, ছাতক, কুলাউড়া এবং শ্রীমঙ্গল। এই শাখাগুলি এক্সপ্রেস ডেলিভারি, আন্তর্জাতিক ডেলিভারি এবং মালবাহী ফরওয়ার্ডিং সহ বিভিন্ন পরিষেবা প্রদান করে।

আরো পড়ুন:  সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস সিলেট সকল শাখা

গ্রাহকরা ক্যাশ অন ডেলিভারি, অনলাইন পেমেন্ট এবং ব্যাঙ্ক ট্রান্সফারও বেছে নিতে পারেন।

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস চট্টগ্রাম শাখা

চট্টগ্রাম বাংলাদেশের একটি প্রধান বন্দর শহর এবং এখানে বেশ কয়েকটি সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিসের শাখা রয়েছে। চট্টগ্রাম শাখার মধ্যে রয়েছে চট্টগ্রাম শহর, পতেঙ্গা, আনোয়ারা এবং কক্সবাজার। এই শাখাগুলি এক্সপ্রেস ডেলিভারি, আন্তর্জাতিক ডেলিভারি এবং মালবাহী ফরওয়ার্ডিং সহ বিভিন্ন পরিষেবা প্রদান করে। 

আরো পড়ুন:  সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস চট্টগ্রাম সকল শাখা

গ্রাহকরা ক্যাশ অন ডেলিভারি, অনলাইন পেমেন্ট এবং ব্যাঙ্ক ট্রান্সফারও বেছে নিতে পারেন।

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস খুলনা শাখা

খুলনা বাংলাদেশের একটি প্রধান শহর এবং এখানে বেশ কয়েকটি সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিসের শাখা রয়েছে। খুলনা শাখার মধ্যে রয়েছে খুলনা শহর, মংলা, যশোর এবং বাগেরহাট। এই শাখাগুলি এক্সপ্রেস ডেলিভারি, আন্তর্জাতিক ডেলিভারি এবং মালবাহী ফরওয়ার্ডিং সহ বিভিন্ন পরিষেবা প্রদান করে। 

আরো পড়ুন:  সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস খুলনা সকল শাখা

গ্রাহকরা ক্যাশ অন ডেলিভারি, অনলাইন পেমেন্ট এবং ব্যাঙ্ক ট্রান্সফারও বেছে নিতে পারেন।

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস গাজীপুর শাখা

গাজীপুর বাংলাদেশের একটি প্রধান শহর এবং এখানে বেশ কয়েকটি সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিসের শাখা রয়েছে। গাজীপুর শাখার মধ্যে রয়েছে গাজীপুর সিটি, জয়দেবপুর এবং কালিয়াকৈর। এই শাখাগুলি এক্সপ্রেস ডেলিভারি, আন্তর্জাতিক ডেলিভারি এবং মালবাহী ফরওয়ার্ডিং সহ বিভিন্ন পরিষেবা প্রদান করে। 

আরো পড়ুন:  সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস গাজীপুর সকল শাখা

গ্রাহকরা ক্যাশ অন ডেলিভারি, অনলাইন পেমেন্ট এবং ব্যাঙ্ক ট্রান্সফারও বেছে নিতে পারেন।

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস কখন বন্ধ থাকে?

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস শুক্রবার সকাল ১১ টা থেকে বিকাল ৫ টা পযর্ন্ত ডেলিভারির জন্য খোলা থাকে।অন্যথায় শুক্রবার বাদে প্রতিদিন সকাল ৯ঃ৩০ থেকে সন্ধ্যা ৭ঃ৩০ পযন্ত সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস চালু থাকে

এছাড়া সুন্দরবন কুরিয়ারের একটি 24-ঘন্টা গ্রাহক পরিষেবা হটলাইনও নাম্বার রয়েছে , যা গ্রাহকরা যেকোনো প্রশ্ন বা সমস্যার জন্য কল করতে পারেন।

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিসের ডেলিভারির জন্য টিপস

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে সফল ডেলিভারি নিশ্চিত করতে গ্রাহকদের কিছু টিপস মনে রাখা উচিত। প্রথমত, গ্রাহকদের সর্বদা প্রাপক এবং প্যাকেজ সম্পর্কে সঠিক এবং সম্পূর্ণ তথ্য প্রদান করা উচিত। 

Read All Bangla News  👉 Tune Status 👈

দ্বিতীয়ত, গ্রাহকদের সর্বদা তাদের পার্সেলগুলি ট্র্যাক করতে ট্র্যাকিং সিস্টেম ব্যবহার করা উচিত। পরিশেষে, ট্রানজিটের সময় প্যাকেজের ক্ষতির ঝুঁকি কমাতে গ্রাহকদের সর্বদা উপযুক্ত প্যাকেজিং উপকরণ ব্যবহার করা উচিত।

উপসংহার

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস বাংলাদেশের অন্যতম প্রধান কুরিয়ার সার্ভিস। সারা দেশে শাখার বিস্তৃত নেটওয়ার্ক সহ, কোম্পানি এক্সপ্রেস ডেলিভারি, ইন্টারন্যাশনাল কুরিয়ার এবং কার্গো পরিষেবা সহ বিভিন্ন পরিষেবা অফার করে৷ গ্রাহকরা কোম্পানির দেওয়া প্যাকেজ ট্র্যাকিং পরিষেবা ব্যবহার করে তাদের পার্সেল ট্র্যাক করতে পারেন।

আমরা আশা করি এই ব্লগ পোস্টটি তে বাংলাদেশে সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিসের সমস্ত শাখা, পরিষেবা ব্যবহার করার খরচ এবং কীভাবে আপনার পার্সেলগুলি ট্র্যাক করবেন তা জানতে সহায়ক হয়েছে৷

FAQS

প্র: সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস প্যাকেজ কতক্ষণ সময় লাগে? 

উ: ডেলিভারির সময় নির্ভর করে আপনি যে ধরনের পরিষেবা বেছে নিয়েছেন তার উপর। এক্সপ্রেস ডেলিভারিতে সাধারণত 1-2 দিন সময় লাগে, যখন আন্তর্জাতিক কুরিয়ার 3-5 দিন নেয়। কার্গো পরিষেবাগুলি সবচেয়ে বেশি সময় নেয়, সাধারণত 7-14 দিন৷

প্র: সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস কি বাংলাদেশের সব শহরে পাওয়া যায়? 

উ: হ্যাঁ, সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিসের সারা বাংলাদেশে শাখার বিস্তৃত নেটওয়ার্ক রয়েছে। দেশের বিভিন্ন শহর ও শহরে অবস্থিত কোম্পানিটির 200 টিরও বেশি শাখা রয়েছে।

প্র: পার্সেল ট্র্যাক করার জন্য কি কোনো ট্র্যাকিং সিস্টেম আছে? 

উ: হ্যাঁ, সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস একটি প্যাকেজ ট্র্যাকিং পরিষেবা অফার করে যা গ্রাহকদের সহজেই তাদের পার্সেল ট্র্যাক করতে দেয়৷ গ্রাহকরা ট্র্যাকিং সিস্টেমে কোম্পানির দেওয়া ট্র্যাকিং নম্বরটি প্রবেশ করে তাদের পার্সেলগুলি ট্র্যাক করতে পারেন।

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url